উদীয়মান পেসার অনিক দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধ

  • 1
    Share
অনিক

ডোপ বিরোধী নিয়ম ভঙ্গ করায় দেশের উদীউমান পেসার অনিক কে দুই বছরের জন্য সব ধরনের ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। ডোপ টেস্টে পজিটিভ তাকে এই শাস্তি দেওয়া হয়েছে।

রবিবার (২৬ জুলাই) বিসিবি এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে কাজী অনিকের নিষিদ্ধের ব্যাপারটি নিশ্চিত করে।

এর আগে ২০১৯ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি অনিককে নিষিদ্ধ করে বিসিবি। আর এই ঘটনাটি ঘটে ২০১৮ সালে জাতীয় ক্রিকেট লিগে। সেই সময় ঢাকা মেট্টোর হয়ে খেলেছিলেন তরুণ এই পেসার। কক্সবাজার শেখ কামাল আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে চট্টগ্রাম বিভাগের বিপক্ষে ম্যাচের পর ডোপ পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ করা হয় এবং তার শরীরে নিষিদ্ধ ওষুধের উপস্থিতি পাওয়া যায়। পরে অনিক দোষ স্বীকার করে নেন।

বিসিবি সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ২০১৮ সালের ৬ নভেম্বর কক্সবাজারে অনিকের নমুনা পরীক্ষা করা হলে মেথামফেটামিন নামক এক ধরনের মাদকের উপস্থিতি ধরা পড়ে, যেটি ২০১৮ সালে আইসিসি নিষিদ্ধ ওষুধের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করে। অনিক দোষ স্বীকার করে দুই বছরের শাস্তি মেনেও নিয়েছেন।

বিসিবি’র ডোপ বিরোধী ১০ ১০.১, ১০ ১০.২ ও ১০ ১০.৩ ধারার নিয়ম বিবেচনায়, এটি এই ক্রিকেটারের প্রথম ডোপ আইন ভাঙ্গার ঘটনা। ২০১৯ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি তাকে দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়। ২০২১ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি আবার তিনি ক্রিকেটে ফিরতে পারবেন।কাজী অনিক ইসলাম বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের হয়ে ২০১৮ সালে যুব বিশ্বকাপেও খেলেছিলেন।

, , ,
শর্টলিংকঃ