করোনা উপসর্গের রোগী বেড়েছে যশোর সীমান্তে

যশোর জেলার সীমান্তবর্তী থানা বেনাপোল পোর্ট এবং শার্শা উপজেলায় করোনা সংক্রমকের  উপসর্গের রোগী বেড়ে গিয়েছে। সীমান্তবর্তী এসব রোগীদের জ্বর নিয়ে করোনা ভীতি থাকলেও করোনা পরীক্ষায় তেমন আগ্রহ নেই। আবার অনেকেই করোনা উপসর্গ নিয়ে রাস্তাঘাট, হাটবাজার ঘুরে বেড়াচ্ছে সতর্কতা ছাড়াই। যদিও দেশের স্বাস্থ্য বিভাগ বলছে করোনা মহামারির এই সময়ে সর্দি-কাশি ও জ্বর দেখা দিলে অবহেলা না করে সাবধানতা অবলম্বন করা এবং হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার কথা।

সীমান্তবর্তী এলাকায় করোনা উপসর্গের রোগী বৃদ্ধি পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

শার্শা উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. ইউসুফ আলি জানান, সোমবার উপজেলায় ১১ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। সব মিলিয়ে এখন পর্যন্ত শার্শা উপজেলায় ৪৫১ জন করোনা রোগী পাওয়া গেছে, যাদের হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, সাধারণ মানুষের অনীহার কারণে ব্যাপক ভাবে টেস্টের আওতায় আনা যাচ্ছে না।

, ,
শর্টলিংকঃ