খুব অসহায় অবস্থায় আছি,দেখার মত কেউই নেই: মৃত্যুঞ্জয়ী ছাত্রনেতা আব্দুল্লাহ আল মাসুদ

আমি আব্দুল্লাহ আল মাসুদ। সাবেক দায়িত্বপ্রাপ্ত ছাত্রলীগ নেতা শামসুদ্দিন হোস্টেল নিউ গভঃ ডিগ্রি কলেজ, সাবেক সহ সম্পাদক, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় এবং সাবেক সদস্য, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদ।

২৯/০৪/২০১৪ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে শিবির ক্যাডাররা আমার উপর হামলা করে,আমার ডান পা বিচ্ছিন্ন করে, অনান্য হাত-পায়ের রগ কেঁটে দেয় এবং মাথায় অসংখ্য গুরুতর আঘাত করে,কোন রকম বেঁচে আছি। আমার হাতের ভিতর এখনো রড আর একটা প্লাস্টিক/কাঠের পা দিয়ে চলাফেরা করি, অপারেশন বাকি আছে,আমি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইতিহাসে বি,এ এবং এম,এ সম্পুর্ন করেছি, চাকরি পেয়ে আবেগ আপ্লুত হয়েছিলাম।

গত ৫-৫-২০২১ তারিখ আমাদের সাবেক ভিসি আব্দুস সোবহান স্যার নিয়োগ দিয়েছিলেন। ৬-৫-২০২১ তারিখ যোগদান করি কিন্তু পরবর্তীতে দফতরে যোগদান করতে পারিনি। এখন নিয়োগ প্রক্রিয়া নিয়ে জটিলতা তৈরি হয়েছে।

অবগত আছেন যে বিএনপি সরকার ক্ষমতায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ৫৪৪ জনকে নিয়োগ দেয়া হয় আর আমাদের দলীয় লোকজন,আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগ ছাত্রলীগের মাত্র ১৩৮ জন নিয়োগ পেয়েছে।

খুব অসহায় অবস্থায় আছি, দেখার মত কেউই নেই। একটা চাকরির জন্য কত যায়গায় কত দোড়ঝাপ আর কত কি।কোন কিছুতেই চাকরি হলো না,যদিও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে একটা চাকরি হলো তা-ও আবার কেউ বলে অবৈধ, কেউ বলে চাকরি হবে না টিকবে না ইত্যাদি ইত্যাদি আপা।

২০১৩ সালে আমার বাবা পরলোকগমন করে। ২০১৪ সালে শিবির আমার উপর হামলা করে সেই খবর পাওয়ার পর গর্ভধারীনি মা মানুষিক ভারসাম্য হারিয়ে পাগল প্রায়।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগ করাটা কি আমার অপরাধ? নাকি ছাত্রলীগ হিসেবে চাকরি পাওয়াটা অপরাধ? আমি সুস্থ স্বাভাবিক জীবন ফিরে পেতে চাই। এমতাবস্থায় এ অসহায় জীবন -যাপন থেকে পরিত্রাণ পেতে চাই।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী,বঙ্গবন্ধুর তনয়া, দেশরত্ন শেখ হাসিনা আপনি আস্থা, ভরসার শেষ ঠিকানা।

সূত্রঃ মৃত্যুঞ্জয়ী ছাত্রনেতা  আব্দুল্লাহ আল মাসুদ  এর ফেসবুক স্ট্যাটাস থেকে নেওয়া।

মৃত্যুঞ্জয়ী ছাত্রনেতা আব্দুল্লাহ আল মাসুদ এর ফেসবুক স্ট্যাটাস

বাংলা প্রবাহ/এম এম

, ,
শর্টলিংকঃ