বিবাহবার্ষিকীর আগেই নুসরাতপতির বিচ্ছেদ চেয়ে মামলা!

টালিউড অভিনেত্রী নুসরাত জাহানকে নিয়ে গুঞ্জন যেন থামছেই না। এমনিতেই খবরের শিরোনামে থাকতে চান পশ্চিমবঙ্গের এই সাংসদ ও অভিনেত্রী । তার মা হওয়ার সংবাদে যেনো আরও তোলপাড় নেট দুনিয়া ও দর্শকদের মাঝে। এদিকে স্বামী নিখিল জৈন নুসরাতের অনাগত সন্তানের পিতৃত্ব অস্বীকার করায় গুঞ্জন জোড়ালো মিডিয়া পাড়ায়। এরপরই ভেসে ওঠে অভিনেতা যশ দাশগুপ্তর নাম। যাঁর সঙ্গে নুসরাত ডেটিং করছেন প্রায় সাত আট মাস হয়ে গেল। শুধু ডেটিং নয়, লিভ টুগেদার করছেন নিজের বাল্লিগঞ্জের ফ্ল্যাটে। নুসরাত কিংবা যশ এ ব্যাপারে রহস্যের জাল জড়িয়ে রাখলেও সোমবার একটি গুঞ্জন আবার দাবানলের মতো ছড়িয়ে পড়ে টলিপাড়ায় যে, নুসরাত নাকি ছমাসের অন্তঃসত্ত্বা এবং তাঁর সন্তান জন্ম নেবে ১০ই সেপ্টেম্বর দক্ষিণ কলকাতার নামী একটি ক্লিনিকে।

খবরটিকে স্বীকার অথবা অস্বীকার কোনোটাই করেননি নুসরাত। অন্যদিকে নুসরাতের স্বামী নিখিল জৈন বিচ্ছেদ চেয়ে দেওয়ানি মামলা করেছেন নুসরাতের বিরুদ্ধে। নিখিল অবশ্য জানিয়েছেন, এই মামলার সঙ্গে নুসরাতের মা হওয়া বা না হওয়ার কোনো সম্পর্ক নেই। যেদিন তিনি জানতে পেরেছিলেন যে নুসরাত তাঁর সঙ্গে না থেকে অন্য কারও সঙ্গে থাকতে চায়, সেদিনই তিনি মামলার সিদ্ধান্তটি নিয়েছিলেন। দু বছর আগে ১৯শে জুন তুরস্কে বিয়ে করেন তাঁরা। সেই অর্থে দ্বিতীয় বিবাহ বার্ষিকীর আগে বিচ্ছেদের আবেদন। নিখিল জানান, নুসরাতের সঙ্গে তার সম্পর্ক জোড়া লাগার কোনো সম্ভাবনা নেই। দুজনের পথ সম্পূর্ণ আলাদা। জানা গেছে তুরস্কে নিখিল-নুসরাতের বিয়ে হয়েছিল হিন্দু ও খ্রিস্টান মতে। আজ করবো, কাল করবো বলে বিয়ের রেজিস্ট্রেশনটাও করা হয়নি। তাই আদালতে স্রেফ আগমেন্টেশন এর দ্বারা বিচ্ছেদ সম্ভব। নুসরাত শুধু আদালতকে জানাবেন যে নিখিলের সঙ্গে তিনি আর থাকতে চান না। দু বছর আগে গড়া সম্পর্কের ইতি চান নিখিন জৈন।

 

, ,
শর্টলিংকঃ