মা-বোনেদের ভোটেই তৃণমূল সরকার গঠন করবেঃ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

  • 5
    Shares
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

‘মা বোনেদের ভোটেই এবার তৃণমূল সরকার গঠন করবে। সঙ্গে থাকবে ভাইদের আশীর্বাদ’ মঙ্গলবার পুরুলিয়া জেলায় এই বার্তাই দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তার কারণও খুব স্পষ্ট। তা হল, জেলার তিনটি নির্বাচনী সভাতেই মহিলাদের নজরকাড়া উপস্থিতি। প্রখর রোদ উপেক্ষা করে হাজার হাজার কর্মী-সমর্থক শুনতে এসেছিলেন নেত্রীর ভাষণ। বসেছিলেন তাঁর অপেক্ষায়। মাঝে মধ্যেই করতালি ও উলুধ্বনিতে মুখরিত হয় সভাস্থল। তাঁদের উদ্দেশে তৃণমূল সুপ্রিমো বলেন, ‘আমরা মা হারিয়ে গিয়েছে। আপনাদের মধ্যে আমি আমার মাকে খুঁজে পাই। বাংলার মানুষই আমার পরিবার। মা-মাটি-মানুষ আমার পরিবার।’ তাঁর কথায়, ‘শুধু ভোট দিলেই হবে না। বিজেপির বহিরাগতরা ভোট লুট করতে এলে মা-বোনেদের হাতা-খুন্তি-ঝাঁটা নিয়ে রুখে দাঁড়াতে হবে।’ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কড়া সমালোচনাও করেন তিনি।

আরও পড়ুনঃ মোদির ঢাকা সফরে ভারতের অর্থনৈতিক স্বার্থও কম নয়: ইকোনমিক টাইমস

এদিন পুরুলিয়ার পাড়া, কাশীপুর ও রঘুনাথপুরে জনসভা করেন মমতা। দুপুর ১২টা ২৫মিনিট নাগাদ পাড়ার চেলিয়ামার সগড়কা মাঠে তাঁর হেলিকপ্টার নামে। সভায় তিনি বলেন, ‘বিজেপি মেয়েদের সম্মান দিতে জানে না। ওরা শুধু বড় বড় বিজ্ঞাপন দিতে পারে। বিজেপি গদ্দার, বিশ্বাসঘাতক, দানব-দস্যুদের দল। ওরা গরিবদের ভালো চায় না। আমাকে অনেক মেরেছে।’ জনতার কাছে তাঁর আর্জি, ‘দুয়ারে রেশন চাইলে ভোটটা আমাকে দিতে হবে। ওরা ৫০০ টাকা দিতে চাইলে এক হাজার টাকা চাইবেন। এক হাজার দিতে চাইলে পাঁচ হাজার চাইবেন। টাকাটা নিয়ে নেবেন। কিন্তু ওদের ভোট দেবেন না।’
মমতা বলেন, ‘বিজেপি ভাবছে মমতাকে চোট করে দিয়েছি। আর বেরতে পারবে না। কিন্তু আমি এক পায়ে এমন শট মারব যে, বিজেপির মাঠ ফাঁকা করে দেব। এমনভাবে তৃণমূলকে ভোট দেবেন যেন, বিজেপি মাঠের বাইরে চলে যায়। সবচেয়ে ভালো খেলতে পারেন মা-বোনেরা।’ তারপরই মহিলাদের উদ্দেশে বলেন, ‘মা বোনেরা হাতা-খুন্তি নিয়ে খেলতে পারবেন তো?’ প্রশ্ন শুনে হাজার হাজার মহিলা উলুধ্বনি ও করতালি দিয়ে সম্মতি জানান।

মমতা বলেন, ‘এরাজ্যের বাইরে যাঁরা আছেন, তাঁদেরও ভোটটা দিতে আসতে বলুন। তা না হলে বিজেপি তাঁদের ভোটার তালিকা থেকে নাম বাদ দিয়ে দেবে। কেন্দ্রীয় সরকারকে সরাসরি আক্রমণ করেন মমতা। বলেন, ‘গ্যাসের দাম কত? আমরা বিনা পয়সায় চাল দিচ্ছি। ওদের বিনা পয়সায় গ্যাস দিতে হবে। বিনা পয়সার চাল নিয়ে কি ৯০০ টাকার গ্যাসে ফোটাবেন? বিজেপি ব্যাঙ্ক, বিমা, রেল, কোল ইন্ডিয়া সব বিক্রি করে দিচ্ছে। মোদি সব খেয়ে নিয়েছে। ওদের শুধু একটাই কারখানা চলছে। সেটা হল নরেন্দ্র মোদির মিথ্যা বলার কারখানা।’

এদিন তৃণমূল সুপ্রিমো রঘুনাথপুরের শিল্পনগরী, পুরুলিয়ার জলের সমস্যা মেটাতে রাজ্য সরকারের একগুচ্ছ জলের প্রকল্প, আগামী এক বছরের মধ্যে পুরুলিয়ার ৫০ শতাংশ মানুষের বাড়িতে পানীয় জল পৌঁছে দেওয়ার কথা জানান। এছাড়াও মা-বোনেদের হাতখরচ দেওয়া, দ্বিগুণ শিক্ষক নিয়োগ, চিকিৎসক ও নার্স নিয়োগের আশ্বাস দেন।
কর্মীদের উদ্দেশে তৃণমূল নেত্রীর বার্তা, ‘ভোট শেষের পর একমাস ইভিএম পাহারা দিতে হবে। সেই সময় কেউ চা, বিরিয়ানি খাওয়াতে চাইলে খাবেন না। ওরা ঘুমের ওষুধ ও বিষ মিশিয়ে ভোট লুট করতে পারে। তাই বাড়িতে ডাল-ভাত-রুটি খেয়ে ইভিএম পাহারা দেবেন।’ ঝাড়খণ্ড বর্ডার সিল করার দাবি জানান তিনি।

আরও পড়ুনঃ মোদি ঢাকায় আসার আগে গুজরাট সফরে বাংলাদেশের হাইকমিশনার

কাশীপুরের জনসভা থেকে জয়পুর আসনে নির্দল প্রার্থী দিব্যজ্যোতি সিংদেওকে সমর্থনের ঘোষণা করেন তৃণমূল সুপ্রিমো। তিনি দলীয় কর্মী-সমর্থকদের নির্দল প্রার্থীকে ভোট দেওয়ার আহ্বান জানান। রঘুনাথপুরের গোবাগের সভায় মমতা বলেন, ‘ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেনের সঙ্গে কথা হয়েছে। উনি বৃহস্পতিবার পুরুলিয়া ও বাঁকুড়ায় তৃণমূলের সমর্থনে সভাও করবেন।’

বাংলা প্রবাহ/এম এম

, , ,
শর্টলিংকঃ