রাজশাহী জেলা আ.লীগের খসড়া কমিটি, বাদ পড়ছেন ৪০ নেতা

তিন মাস পর কমিটি পেতে যাচ্ছে রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগ। এর আগে সম্মেলনের মাধ্যমে আংশিক কমিটি ঘোষণা করা হয়। গত বৃহস্পতিবার (১২মার্চ) এই কমিটির নেতারা পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদনের জন্য একটি খসড়া তালিকা জমা দিয়েছেন। এ তালিকায় দেখা যায়, ৭৫ সদস্যের কমিটি করার থাকলেও সেখানে দেয়া হয়েছে ৭৪ জনের নাম। বাদ পড়েছেন আগের কমিটির অন্তত ৪০ জন সিনিয়র নেতা।।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গত ৮ ডিসেম্বর রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ওই দিন রাজশাহী-৩ আসনের সাবেক এমপি মেরাজ উদ্দিন মোল্লাকে সভাপতি ও রাজশাহী-৫ আসনের সাবেক এমপি কাজী আব্দুল ওয়াদুদ দারাকে সাধারণ সম্পাদক করে চার সদস্যের আংশিক কমিটি ঘোষণা করা হয়। কমিটিতে যুগ্ম-সম্পাদক বাঘা উপজেলা চেয়ারম্যান লায়েব উদ্দিন লাভলু ও রাজশাহী-৩ আসনের এমপি আয়েন উদ্দিনকে রাখা হয়।

কেন্দ্রীয় নেতারা কমিটি ঘোষণার সময় আংশিক কমিটির নেতাদের ১ মাসের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের নির্দেশ দেয়। তবে প্রায় তিন মাসেও তা পূর্ণাঙ্গ করতে না পারায় গত ১ মার্চ রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলনে এসে ১৫ দিনের আল্টিমেটাম দিয়ে যায়। তবে বেঁধে দেয়া সময়ের তিন দিন আগেই খসড়া তালিকা কেন্দ্রে জমা দেয় তারা।

খসড়া কমিটি অনুযায়ী- সভাপতি মেরাজ উদ্দিন মোল্লা। সহ-সভাপতিরা হলেন- অনিল কুমার সরকার, আমানুল আহসান দুদু, অধ্যক্ষ আ.ন.ম মনিরুল ইসলাম তাজুল, অধ্যক্ষ এসএম একরামুল হক, রিয়াজ উদ্দিন, সাইফুল ইসলাম দুলাল, শরীফুল ইসলাম শরীফ, সাবিয়ার রহমান মাস্টার, শরীফ খান, সোহরাব হোসেন ও জাকিরুল ইসলাম সান্টু।

সাধারণ সম্পাদক কাজী আবদুল ওয়াদুদ দারা। যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক লায়েব উদ্দিন লাভলু, আয়েন উদ্দিন ও মোস্তাফিজুর রহমান মানজাল। সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম আসাদুজ্জামান আসাদ, অ্যাডভোকেট আবদুস সামাদ, আবুল কালাম আজাদ।

আইন বিষয়ক সম্পাদক এজাজুল হক মানু, কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক প্রতীক দাস রানা, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক মেহবুব হাসান রাসেল, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক রেজাওয়ানুল হক পিনু মোল্লা, দপ্তর সম্পাদক প্রদ্দ্যেত কুমার সরকার, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক এন্তাজ আলী, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমজাদ হোসেন নবাব।

বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক কামরুল ইসলাম, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক জিএম হিরা বাচ্চু, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক পূর্ণিমা ভট্টাচার্য, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক আলী খাজা, যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক মোস্তাক আহমেদ, শিক্ষা ও মানব বিষয়ক সম্পাদক মোজাম্মেল হক, শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক জিয়াউদ্দিন টিপু।

শ্রম সম্পাদক আসলাম আলী, সাংষ্কৃতিক সম্পাদক মামুনুর রশঈদ সরকার মাসুদ, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. চিন্ময় দাস। উপ-দপ্তর সম্পাদক আব্দুস সাত্তার, উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মো. বাক্কার ও কোষাধ্যক্ষ আজিজুল আলম।

সদস্যরা হলেন- বেগম আখতার জাহান, ওমর ফারুক চৌধুরী এমপি, আসাদুজ্জামান আসাদ, শাহরিয়ার আলম এমপি, ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক এমপি, ডা. মুনসুর রহমান এমপি, আদিবা আনজুম মিতা এমপি, অ্যাড. ইব্রাহিম হোসেন, আবদুস সালাম, নজরুল ইসলাম, আনোয়ার হোসেন, ইয়াসিন আলী, সাইফুল ইসলাম বাদশা, আক্কাছ আলী, ফকরুল ইসলাম, গোলাম রাব্বানী।

আব্দুল্লাহ আল মামুন, আবদুল মালেক, আশরাফুল ইসলাম বাবুল, অয়েজ উদ্দিন বিশ্বাস, অধ্যক্ষ গোলাম সারওয়ার আবুল, শহিদুজ্জামান শহিদ, রবিউল ইসলাম রবি, আবদুর রাজ্জাক, সরদার জান মোহাম্মদ, খাদেমুন নবী চৌধুরী, সামশুল ইসলাম, শিউলী রানী সাহা, মাহবুবুল আলম মুক্তি, মরজিনা বেগম, সুরঞ্জিত কুমার সরকার, আবদুল মান্নান, নীলিমা বেগম এবং বদরুল ইসলাম তাপস।

বাদ পড়ছেন যারা:
আগের কমিটি থেকে বাদ পড়া ৪০ নেতার মধ্যে অন্যতম সাবেক প্রতিমন্ত্রী জিনাতুন নেসা তালুকদার, আওয়ামী লীগের জাতীয় পরিষদের সাবেক সদস্য একেএম আতাউর রহমান খান, গোদাগাড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি বদরুজ্জামান রবু মিয়া, বদিউজ্জামান বদি।

সাবেক এমপি রায়হানুল হক রায়হান, জেলা কমিটির সাবেক সহ-সভাপতি আবদুল মজিদ সরদার, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য নুরুল ইসলাম ঠাণ্ডু, পবা উপজেলা চেয়ারম্যান মুনসুর রহমান, আগের কমিটির বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক আখতারুজ্জামান আক্তার, প্রবীণ নেতা আবদুল বারীর মতো ত্যাগী নেতারা।

জানতে চাইলে কমিটি অনুমোদন হওয়ার আগে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী আব্দুল ওয়াদুদ দারা। তিনি বলেন, ‘পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদনের আগে এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করবো না।’

জানতে চাইলে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও রাজশাহী বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা এসএম কামাল হোসেন বলেন, ‘খসড়া কমিটি জমা হয়েছে শুনেছি। তবে এখনও খসড়া কমিটি নিয়ে আমরা বসতে পারিনি। বিষয়টি নিয়ে এখন মন্তব্য করা উচিতই হবে না। পর্যালোচনা করে দেখি, যদি কোন বিতর্কিত এবং হাইব্রিড নেতা থেকে থাকে তবে তারা বাদ পড়বে।’

বাংলাপ্রবাহ২৪/এসএ

শর্টলিংকঃ