আগামী ‍দুই বছরে বাংলাদেশ টেস্টেও ভাল দল হয়ে উঠবে

Ecare Solutions

 

সাউথ আফ্রিকা সফরে ওয়ানডে সিরিজে বাজিমাত করলেও টেস্টে বড় ব্যবধানে হারের হতাশায় ডুবিয়েছে বাংলাদেশ। ৫০ ওভারের খেলায় তামিম-মুশফিকরা লড়েন বুক চিতিয়ে। কিন্তু লাল বলের ক্রিকেটে অসহায় আত্মসমর্পণই করতে হয় বেশি।

বাস্তবতা এটাই, ওয়ানডে ছাড়া অন্য সংস্করণে সবল দল নয় বাংলাদেশ। টাইগার ডেরায় শ্রীলঙ্কা টেস্ট খেলতে আসার দিন সংবাদমাধ্যমের সামনে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন কথা বলেছেন বিষয়টি নিয়ে। যে পরিকল্পনায় বিসিবি সামনের পথ হাঁটবে, তাতে আগামী দুই বছরের মধ্যে টেস্টেও ভালো দল হয়ে উঠবে বাংলাদেশ, এমন বিশ্বাস তার।

‘আমরা সব ফরম্যাটে ভালো না। তিন ফরম্যাটেই ভালো ছিলাম না। এখন ওয়ানডেতে ভালো করছি। ভালো করে আসছি, সামনেও করতে পারব তার কোনো নিশ্চয়তা নেই। এটার জন্য প্রচুর কাজ করতে হবে। সাথে সাথে টেস্টে আরও বেশি নজর দিচ্ছি। আমাদের ধারণা আপাদমস্তক উন্নতি চাইলে টেস্টে আগাতে হবে।’

‘এখন সবচেয়ে জনপ্রিয় টি-টুয়েন্টি ক্রিকেট। এখানেও কাজ করার জায়গা আছে। তবে ওয়ানডের পর আমরা টেস্টে সবচেয়ে মনোযোগী হতে চাই। বেশ কয়েকজন টেস্টে নতুন নেমেছে, তারা ভালো করছে। তবে ধারাবাহিকতার অভাব রয়েছে। কেনো জানি তাদেরকে সময় দিতে চাই না। সিনিয়রদেরও ধারাবাহিক হতে অনেক সময় লেগেছে।’

‘ফরম্যাট অনুযায়ী খেলার সিদ্ধান্ত খেলোয়াড়দেরই নিতে হবে। আমাদের কাকে কোন জায়গায় প্রয়োজন আর খেলোয়াড়দেরও পছন্দ যদি মিলে যায়, তাহলে ভালো। সবাই যদি বেছে নেয় টি-টুয়েন্টি খেলবে, তাহলে ওয়ানডে দল তো খারাপ হয়ে যাবে। আমরা প্রমাণ করেছি আমরা ভালো খেলতে পারি। ওয়ানডেতে যদি পারি অন্য ফরম্যাটও পারব। দুই বছরের মধ্যে টেস্টেও আমরা ভালো করব।’ বলেন বিসিবি সভাপতি।

 

 

বাংলা প্রবাহ/ সু

Ecare Solutions
শর্টলিংকঃ