রাবি অফিসারদের ১২ দফা দাবি

Ecare Solutions

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) কর্মকর্তাদের অবসরের বয়সসীমা ৬৫ বছরে উন্নীতকরণসহ ১২ দফা দাবি জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মরত অফিসারবৃন্দ। রবিবার (১৯ জুন) বেলা ১১ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্যারিস রোডে বাংলাদেশ আন্ত:বিশ্ববিদ্যালয় অফিসার্স ফেডারেশন কর্তৃক ঘোষিত রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় অফিসার্সবৃন্দ আয়োজিত এক মানববন্ধনে তারা এ দাবি জানান ।

তাদের দাবি সমূহ হলো, কর্মকর্তাদের অবসরের বয়সসীমা ৬৫ বছরে উন্নীতকরণ, ৩য় গ্রেড পর্যন্ত পদোন্নয়ন সুবিধা, কর্মকর্তা হিসেবে ৪ বার পদোন্নয়ন সুবিধা প্রদান করতে হবে, পদ অনুসারে গ্রেড উন্নয়ন করতে হবে; কর্মকর্তাদের নিয়োগ, পদোন্নতি ও পদোন্নয়ন সংক্রান্ত কমিটিতে কর্মকর্তা সমিতির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে অন্তর্ভুক্ত করা, সকল দপ্তরের নন টিচিং পদে কর্মকর্তাদের নিয়োগ বাধ্যতামূলক করা।

তারা আরো দাবি করেন, শিক্ষাছুটির মেয়াদ এবং সক্রিয় চাকরীকাল সংক্রান্ত বিষয় নির্দেশিকায় উল্লেখ করা; বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তাদের শিক্ষাগত যোগ্যতা প্রযোজ্য ক্ষেত্রে শিথিল করা; পদোন্নয়নের ক্ষেত্রে আবেদনের প্রেক্ষিতে প্রচলিত নিয়ম অনুসরণ করার সুযোগ রাখা, ২য় গ্রেডধারী কর্মকর্তাদের মোট চাকুরীকাল ন্যূনতম ২২ বছর এবং যোগ্যতার ভিত্তিতে মোট ২য় গ্রেডধারী কর্মকর্তার ২৫% কর্মকর্তাকে ১ম গ্রেড প্রদান; পদ অনুযায়ী সকল সুবিধা নিশ্চিত করা; সংশ্লিষ্ট বিষয়াবলী নিয়ে উদ্বুদ্ধ জটিলতা এড়ানোর স্বার্থে ফেডারেশন নেতৃবৃন্দের পুনরায় আলোচনা করা এবং খসড়া প্রদান করার ব্যবস্থা গ্রহণ।

কর্মসূচিতে কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের উপ-গ্রন্থাগারিক এবং অফিসার্স সমিতির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ড. গোলাম মোস্তফা বলেন, ” বাংলাদেশ আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় অফিসার্স ফেডারেশন আজকে দেশের সকল বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মসূচির ডাক দিয়েছে। কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে আমরা এখানে একত্রিত হয়েছি। ইউজিসির নীতিমালা কমিটিতে কোন অফিসার অন্তর্ভুক্ত নেই, তাই তারা কি করছে, আমরা জানতে পারছি না। তাদের কমিটিতে আমাদের ফেডারেশনের সদস্যদের অন্তর্ভুক্ত করতে হবে। আমাদের সকল দাবি মানা না হলে, আমরা কঠোর আন্দোলন গড়ে তুলবো।

কৃষি প্রকল্পের সেকশন অফিসার মনি আকতারুল ইসলাম বলেন, একটি নির্দিষ্ট কর্তৃপক্ষ আমাদের পদোন্নতি আটকে রাখতে চায়। আমরা আমাদের নায্য অধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছি। আমাদের ১২ দফা দাবি অতিসত্বর মেনে নিতে হবে।

মানববন্ধনে জনসংযোগ দপ্তরের উপ-রেজিস্ট্রার মোঃ শহীদুল্লাহর সঞ্চালনায় আরো বক্তব্য রাখেন শারীরিক শিক্ষা বিভাগের উপ-পরিচালক কামরুজ্জামান চঞ্চল, বরেন্দ্র জাদুঘরের উপ-গ্রন্থাগারিক আসলাম রেজা, দর্শন বিভাগের সহকারী রেজিস্টার মাসুদ রানাসহ প্রমূখ।

বাংলা প্রবাহ/এন এ

Ecare Solutions
শর্টলিংকঃ