কাতার বিশ্বকাপে নিরাপত্তা সহায়তা দেবে ন্যাটো

Ecare Solutions

ফুটবলের সবচেয়ে বড় আসর তথা বিশ্বকাপ ঘিরে সাজ সাজ রব কাতারে। আয়োজক দেশটিতে চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি।

ফুটবল মহাযজ্ঞের সাক্ষী হতে দেশটিতে হাজির হবেন নানা দেশের লাখো মানুষ। এত মানুষের জন্য কাতারের মতো ছোট দেশের পক্ষে নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা মোটেই সহজ কাজ নয়। তাই সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে সামরিক জোট ন্যাটো।
৩০ দেশের সামরিক জোট ন্যাটোর পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে। সেই বিবৃতিতে বলা হয়েছে, রাসায়নিক, জৈবিক, রেডিওলজিক্যাল এবং পারমাণবিক হুমকি মোকাবিলায় কাতার বিশ্বকাপের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা সংস্থার সদস্যদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করবে ন্যাটো।

ন্যাটো জানিয়েছে, প্রশিক্ষণ সরঞ্জাম সরবরাহ করবে ন্যাটোর সদস্যদেশ স্লোভাকিয়া এবং চেক রিপাবলিকে অবস্থিত ন্যাটোর যৌথ ডিফেন্স সেন্টার অব এক্সিলেন্স। এরইমধ্যে স্লোভাকিয়ায় গত মে মাসে প্রথম পর্যায়ের প্রশিক্ষণ পর্ব শেষ হয়েছে।

কাতার বিশ্বকাপে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের (ভিআইপি) নিরাপত্তা প্রদান ও উন্নত বিস্ফোরক ডিভাইস নিষ্ক্রিয়করণের ব্যাপারে প্রশিক্ষণ দেবে ন্যাটোর আরেক সদস্যদেশ রোমানিয়া। অন্যদিকে ন্যাটোর আরেক সদস্যদেশ ও কাতারের বন্ধুরাষ্ট্র তুরস্ক এরইমধ্যে বিশ্বকাপের জন্য নিরাপত্তা সহায়তা পরিকল্পনার রূপরেখা প্রকাশ করেছে। দেশটি ৩ হাজার ২৫০ জন নিরাপত্তা কর্মকর্তা পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এর আগে কাতারি নিরাপত্তা বাহিনীকে প্রশিক্ষণও দিয়েছে তুরস্ক।

তুরস্কের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সুলেমান সোয়লু জানিয়েছেন, তার দেশ বিশ্বকাপে নিরাপত্তা প্রদানের জন্য প্রায় ৩ হাজার দাঙ্গা পুলিশ পাঠাবে। সেই সঙ্গে বিশেষ বাহিনীর ১০০ সদস্য, বোমা সনাক্তকরণ করতে সক্ষম ৫০টি কুকুর ও তাদের প্রশিক্ষক এবং ৫০ জন বোমা বিশেষজ্ঞও পাঠানো হবে।

আগামী নভেম্বরের শেষ ভাগে বিশ্বকাপের ২২তম আসর বসবে কাতারে। পুরো মধ্যপ্রাচ্যের প্রথম দেশ হিসেবে বিশ্বকাপ আয়োজন করতে যাচ্ছে মধ্যপ্রাচ্যের তেল-গ্যাস সমৃদ্ধ ক্ষুদ্র দেশটি। আগামী ২১ নভেম্বর উদ্বোধন হবে এবারের এই ফুটবল মহযজ্ঞ। ৩২ দলের এই টুর্নামেন্ট শেষ হবে ১৮ ডিসেম্বর।

বাংলা প্রবাহ/এন এ

Ecare Solutions
শর্টলিংকঃ